কারো সাথে কথা বলছেন না আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনান

গতকাল রাতে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের রায় অনুযায়ী আবু ত্ব-হা ও তার সঙীরা পারিবারিক জিম্মায় যাওয়ার পর থেকে মিডিয়া বা সংবাদ মাধ্যমের কারো সাথে দেখা বা সাক্ষাৎ বা কথা বলছেন না।

শনিবার সকালে আদনানের বাড়িতে গিয়ে কথা বলতে চাইলে তার পরিবার থেকে কখনো বলা হয় তিনি ঘুমিয়ে আছেন কখনো জানানো হয় তিনি বিশ্রামে আছেন।

রংপুর সেন্ট্রাল রোডে আবু ত্বহার বাড়িতে গেলে পরিবারের কেউ তেমন সাড়া দিচ্ছেন না বা কিছু বলা হচ্ছেনা।
যদিও একবার তাদের পক্ষ থেকে উত্তর আসলো তিনি তার শ্বশুর বাড়ি আছেন , এই কথার পরে শ্বশুর আজহারুল মন্ডলের বাড়ি গিয়ে খোঁজ করার পরেও তারা তেমন কিছু বলছেন না।

কোথায় আছেন বা কেমন আছেন জানতে চাইলে ভেতর থেকেই একজন বলেন ত্ব-হা তার পরিবারের সাথেই আছেন ভালই আছেন সুস্থ আছেন,
তার এখন রেস্টের দরকার তাই আপাতত কারো সাথে কথা বলতে বা সাক্ষাত করবেন না।

অপর দিকে গাড়ি চালক আমির উদ্দিনের আশরতপুরের বাড়িতে গেলে একই ধরনের পরিস্থিতি দেখা যায়, আমিরের ছোট ভাই ফয়সাল বলেন ভাই আপাতত কারো সাথে কথা বলতে চাচ্ছে না, এই বলে তিনি আর মন্তব্য করেননি বা পরিবারের কেউই মিডিয়ার সামনে আসেননি।

গতকাল শুক্রবার আবু ত্ব-হা আদনান সহ তার ড্রাইভার ও ২ সঙীর উদ্ধার হওয়ার পর থানায় ও গোয়েন্দা কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পরে প্রেস ব্রিফ করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের দাবী করেন আবু ত্বহা আদনান তার সঙীদের নিয়ে ব্যাক্তিগত কারনে নিরুদ্দেশ হয়ে আত্বগোপন করেছিলেন।

১০ জুন রাত থেকে গুম হওয়ার পরদিন আদনানের মা আজেদা বেগম রংপুরের কোতোয়ালি থানায় একটি জিডি করেছিলেন
নিখোঁজ হওয়ার ৮ দিন পর গতকালই তাকে পাওয়া যায়, স্বপরিবারে তারা রংপুর থাকেন।

ত্ব-হার মা আজেদা বেগমের ভাষ্য মতে , আবু ত্ব-হা অনলাইনে আরবি পড়াতেন এর পাশাপাশি বিভিন্ন মসজিদে জুমার নামাজের খুতবা দিতেন। ১০ জুন বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকার মসজিদে একটি খুতবা দেবার জন্য রংপুর থেকে ৪’টার দিকে ভাড়া করা গাড়িতে ঢাকা রওয়ানা দেন। সঙ্গে ছিলেন তাঁর সঙ্গী আবদুল মুহিত ও ফিরোজ আলম। গাড়িচালক ছিলেন আমির উদ্দিন। রাত আড়াইটায় আদনানের স্ত্রী ফোন দিলে আদনান বলেন, তিনি ঢাকার গাবতলীতে আছেন। মুঠোফোনের চার্জ প্রায় শেষ। এরপর থেকে আদনানসহ সবার মোবাইল ফোনই বন্ধ ছিল।

About admin

Check Also

দিনাজপুরে লকডাউন এক সপ্তাহ বাড়ল

দিনাজপুরে লকডাউন এক সপ্তাহ বাড়ল আগে ১৫ জুন সকাল ৬টা থেকে এক সপ্তাহের লকডাউন কর্মসূচির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *